বিশ্বকাপে ফিক্সিং ঠেকাতে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে আইসিসির নতুন কৌশল

আগামী ৩০ মে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ওয়ানডে ক্রিকেট বিশ্বকাপ। এবারের বিশ্বকাপে অংশ নিচ্ছে ১০ দল। যেখানে প্রতিটি দল প্রতিটি দলের সঙ্গে একবার করে মুখোমুখি হবে। ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় এই আসরে যে ম্যাচ ফিক্সিং থেকে শুরু করে কোনো ধরণের দুর্নীতি হবে না সেই নিশ্চয়তাও দেয়া যাচ্ছে না। এদিকে বিশ্বকাপ আয়োজনে যাতে কলঙ্কময় কিছু না ঘটে সেই ব্যবস্থাও অবশ্য আগেভাগেই নিয়ে নিয়েছে আইসিসি। বিষয়টি সামনে রেখে বসে নেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

আসন্ন ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ সবার সামনে ফিক্সিং রোধ করে দৃষ্টান্ত স্থাপনে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ সংস্থাটি। সেজন্য ১০ দলের প্রতিটির সঙ্গে একজন করে দুর্নীতি দমন কর্মকর্তা রাখার ব্যবস্থা করছে আইসিসি।

এ ব্যাপারে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রস্তুতি ম্যাচ থেকেই প্রতিটি দলের সঙ্গে একজন করে দুর্নীতি দমন কর্মকর্তা থাকবেন। আসর শেষে দেশের বিমানে ওঠার আগ পর্যন্ত দলের সঙ্গে থাকবেন তিনি।

এদিকে অতীতে প্রতিটি ভেন্যুতে একজন করে কর্মকর্তা নিয়োগ রাখত আইসিসির দুর্নীতি দমন ইউনিট (আকসু)। ফলে মাঠের বাইরে তাদের দেখা পেতেন না ক্রিকেটারেরা। তবে সেই কর্মকর্তারাই এখন থেকে প্রতিটি দলের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত থাকবেন। এমনকি খেলোয়াড়েরা শপিং মলে গেলেও তাদের সঙ্গে থাকবেন তারা।

শুধু মাত্র দুর্নীতি ঠেকাতেই এ কর্মকর্তাদের নিয়োগ দিচ্ছে না আকসু। ক্রিকেটারদের সঙ্গে যেন সার্বক্ষণিক যোগাযোগ থাকে সেই উদ্দেশ্যও আছে। কোনো অসংগতি দেখলেই ক্রিকেটারেরা যেন তাদের শরণাপন্ন হতে পারেন কিংবা অবহিত করতে পারেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*