অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাকিস্তানের অতীত পরিসংখ্যান দেখে নিন

পাকিস্তানের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার তিনি। মোহাম্মদ হাফিজের কথা বলা হচ্ছে। এটি তার শেষ বিশ্বকাপ। বয়স ৩৮। ফর্মে কোনো ভাটা নেই। প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে উড়ে যাওয়া পাকিস্তান ফেভারিট ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জিতেছে।জিতিয়েছেন হাফিজ। ৬২ বলে ৮৪ রানের ইনিংস খেলে হয়েছেন ম্যাচসেরা। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচেও হাফিজ পাকিস্তানের বাজি। এদিকে অ্যারন ফিঞ্চকে নিয়ে সতর্ক পাকিস্তান। অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক পাকিস্তানের বিপক্ষে মাত্র নয় ইনিংসে দুটি করে সেঞ্চুরি ও হাফ সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন। হাফিজ ও ফিঞ্চ ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারেন।

বিশ্বকাপে এবার পাকিস্তান ফেভারিট নয়। ক্যারিবীয়দের কাছে বড় ব্যবধানে হেরে পাকিস্তানের শুরুটা হয় বাজে। তারা যে অননুমেয় দল আরেকবার তা প্রমাণ করেছে ফেভারিট ইংল্যান্ডকে হারিয়ে।

এদিকে টানা দুই জয়ের পর ভারতের বিপক্ষে হেরে চাপে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানকে হারায় তারা। পরের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হারতে হারতে জিতেছে অসিরা। ভারতের বিপক্ষে আর পেরে ওঠেনি পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে আবার জয়ে ফিরতে মরিয়া ফিঞ্চরা। অধিনায়ক ফিঞ্চের পাকিস্তানের বিপক্ষে গড় ৬৬.৬২। ৮৪.০৫ স্ট্রাইক রেটে নয় ম্যাচে করেছেন ৪৮৫ রান। অপরাজিত ১৫৩ রানেরও একটি ইনিংস রয়েছে তাতে।

দু’দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে অনেক এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া। এখন পর্যন্ত ১০৩ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া জিতেছে ৬৭টি। পাকিস্তানের জয় মাত্র ৩২ ম্যাচে। একটি ম্যাচ টাই হয়েছে। তিনটি পরিত্যক্ত। অতীত সাফল্যের সঙ্গে সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সও অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে। কিন্তু পাকিস্তান বারবার দেখিয়েছে তারাও বড় আসরের দল।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*